আইটি

  • কখনো কি মনে প্রশ্ন জেগেছে ইন্টারনেটের মালিক কে? না জানলে জেনে নিন

    া হয় ইন্টারনেট সেবা দাতা বা আইএসপি (Internet Service Provide)। এখন কোন দেশ বা যদি কেউ নিজের প্রয়োজনে ইন্টারনেট এক্সেস পেতে চায় তাহলে তাকে অবশ্যই এই আইএসপির সাথে যোগাযোগ করতে হবে। বিশ্বের সে সকল আইএসপি বা ইন্টারনেট সেবা দাতা প্রতিষ্ঠান বিখ্যাত তারা হলেন- UUNET, Level 3, Verizon, AT&T, Qwest, Sprint, Sprint, IBM ইত্যাদি।

    বড় বড় আইএসপি গুলো থেকে আবার সৃষ্টি হয়েছে ছোট ছোট আইএসপি। যারা আমাদেরকে ইন্টারনেট সেবা দিয়ে থাকে। এখানে মনে রাখা প্রয়োজন, যে সিস্টেম আমাদের কম্পিউটার টু কম্পিউটার ডাটা এক্সচেঞ্জ করে থাকে তাকে বলা হয় Internet Exchange Points (IXP)। বিভিন্ন কোম্পানি এবং অলাভজনক কিছু প্রতিষ্ঠান এটা নিয়ন্ত্রন করে থাকে। এখন কথা হলো প্রত্যেকটা আলাদা আলাদা আইএসপির আলাদা ইন্টারনেট থাকে। এখন আপনি একক ভাবে যদি কোন কম্পিউটার দিয়ে সেই ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হতে হোন তাহলে সেই ইন্টারনেটের মালিক আপনিও। মানে হলো, আপনি নিজেও ইন্টারনেটের একটা অংশের মালিক। কারন সমগ্র ইন্টারনেটের কোন মালিকানা হয় না। যদিও অনেক প্রতিষ্ঠান বা দেশের সরকার নিজেদের ইন্টারনেট ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারে যাকে বলা হয় লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বা LAN (Local Area Network)। যাহোক, মুদ্দা কথা হলো আপনি এবং আমি আমরা সকলেই একেক জন একেকটা ইন্টারনেট খণ্ডের মালিক। নিজেকে তো মালিক বলে দাবী করে ফেলেছেন, এখন কি মনে প্রশ্ন আসছে না যে এই জিনিসের দায়িত্ব আপনি কতোটা নিয়েছেন? আপনি যদি এর দায়িত্ব না নিয়ে থাকেন তাহলে এই সব কিছুর জন্য কে দায়িত্ব নিবে?

    সবকিছুর জন্য তাহলে দায়ী কে?
    মানুষের স্বভাব হলো উপরে উপরে অনেক কথা বললেও কাজের বেলায় দায়িত্ব নিতে পারে না। যেভাবে আপনাকে ইন্টারনেটের মালিক বানিয়ে খুশি করে দিলাম সেভাবে যদি আপনার উপর ইন্টারনেটের দায়িত্ব দিয়ে দিই তাহলে আপনার দায়িত্ব নেওয়া তো দুরের কথা আমার দফা রফা করে দিবেন। যাহোক, আমি আগেই বলেছিলাম যে ইন্টারনেট ব্যবস্থাটা চলে কিছু নিয়মের উপর যাকে আমরা প্রটোকলস (Protocols) বলি। সেই প্রটোকলগুলো মেনেই একটি কম্পিউটার ইন্টারনেট নেটওয়ার্কের সাহায্যে অন্য কম্পিউটার তথ্য প্রদান করে। প্রটোকল না মেনে কোন কম্পিউটার তথ্য প্রদান করতে পারেনা। এখন যদি কোন প্রটোকল না থাকে তাহলে আপনাকে আগে নিশ্চয়তা দিতে হবে যে আপনি অন্য কম্পিউটারে যে তথ্য প্রদান করছেন তার জন্য আপনাদের বোঝাপড়া আছে। এবং আপনার পাঠানো তথ্য সঠিক গন্তব্যেই পৌছাতে পারবে।

    এখন কথা হলো ইন্টারনেটের যে হারে উন্নয়ন হচ্ছে তাতে বিংশ শতাব্দীর প্রটোকলের সাথে একবিংশ শতাব্দীর প্রটোকল বা আগের বছরের সাথে পরের বছরের প্রটোকল একই রকম থাকবে এটা ভাবা বোকামী। ইন্টারনেটের উন্নতির সাথে এই প্রটোকল গুলোরও উন্নতি প্রয়োজন। তার মানে দাড়ালো, কাউকে না কাউকে এই নিয়মগুলো মানে প্রটোকল পরিবর্তন করতে হবে। আপনাদের আর প্রশ্ন করবো না, সমগ্র ইন্টারনেট কাঠামো এবং প্রটোকল ঠিক করে দেওয়ার জন্য রয়েছে অনেকগুলো সংগঠন যারা নিষ্ঠার সাথে তাদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। চলুন তাদের সম্পর্কে কিছু জেনে নিই।

    The Internet Society : একটি অলাভজনক সংগঠন যারা ইন্টারনেট স্ট্যান্ডার্ড এবং পলিসি নির্ধারন এবং উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।
    The Internet Engineering Task Force (IETF) : এটি একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন যাদের রয়েছে ওপেন মেম্বারশীপ পলিসি এবং এরা বিভিন্ন গ্রুপ ভিত্তিক কাজ করে থাকে। ইন্টারনেটের বিভিন্ন বিষয়কে এরা আলাদা আলাদা ভাগ করে প্রত্যেক ভাগের জন্য দক্ষ জনশক্তিকে কাজে লাগায় এ সংগঠনটি। বর্তমান ইন্টারনেটের এই স্থিতিশীলতা এই সংগঠনের অনবদ্য অবদান।
    The Internet Architecture Board (IAB) : এরা সাধারনত ইন্টারনেট প্রটোকল প্রণয়ন এবং স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারনে কাজ করে থাকে।
    The Internet Corporation for Assigned Names and Numbers (ICANN) : এই সংগঠনটি ব্যক্তিগত কিন্তু অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠান যাদের কাজ হলো এটা নিশ্চিত করা যে প্রত্যেকটা ডোমেইন নেইম সিস্টেমের (Domain Name System (DNS) সাথে সঠিক আইপি এড্রেসটি লিংক করা আছে কি না।

    এই সংগঠনগুলো ইন্টারনেটের জন্য সবকিছু করলেও এরা কখনো ইন্টারনেটের মালিকানা দাবি করতে পারেনা। আসল কথা হলো কেন্দ্রিয়ভাবে ইন্টারনেটের কোন মালিকানা নেই। অনেকেই এটার উন্নয়নে কাজ করলেও এখনো পর্যন্ত কেউ এটার মালিকানা দাবি করতে পারেনি।

    (স্বাধীনবাংলা/এনজে)

    -->

    নিউজ ডেস্ক : কখনো কি মনে প্রশ্ন জেগেছে সমগ্র ইন্টারনেটের মালিক কে? মনে প্রশ্ন জাগুক বা না জাগুক, আজ এমন প্রশ্নের উত্তর নিয়েই আপনাদের জন্য সব আয়োজন। কিছুক্ষণ চলুন কল্পনার রাজ্য থেকে ঘুরে আসা যাক। আস্তে করে চোখ বন্ধ করুন, মনে করুন একটি বিশাল হল ঘরে বসে রয়েছেন আপনি। ঘর ভর্তি বিশ্বের সব দেশের মানুষ, … বিস্তারিত »

  • খুব সহজেই ডিলিট করা ফাইল ফিরিয়ে আনুন!

    জেনে রাখুন কিভাবে করবেন- যদি আপনার মোবাইলের সমস্ত মেসেজ ভুলবসত মুছে যায় যা ছিল আপনার জন্য একান্ত প্রয়োজনীয়। তাহলে আপনার দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া দরকার। ১। এন্ড্রয়েড ফোনটি KING ROOT দিয়ে রুট করে নিন । প্রথম বার root করতে ব্যর্থ হলে আবার চেষ্টা করুন হয়ে যাবে। 2। গুগল প্লে স্টোর থেকে GT Recovery সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে … বিস্তারিত »

  • ই-মেইলে ক্লিক ছাড়াই ডাউনলোড হচ্ছে ট্রোজান ভাইরাস

    ই-মেইলের মাধ্যমে একটি ট্রোজান ভাইরাস ছড়াচ্ছে। যেটি কোনো ক্লিক ছাড়াই এবং আপনার অনুমতি ছাড়াই কম্পিউটারে ঘাঁটি গেড়ে বসবে। মূলত ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য এবং আফ্রিকার বড় সংস্থাগুলিকে টার্গেট করা হচ্ছে। একটি স্প্যাম ই-মেইল পাঠানো হচ্ছে সংস্থার কর্মী এবং কর্তাদের মেইল আইডিতে। যেখানে ‘ফাইনান্স, অর্ডার’ ইত্যাদি ব্যবসা-সংক্রান্ত শব্দ লেখা থাকছে। সঙ্গে থাকছে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেসেন্টেশন। পাওয়ার পয়েন্ট … বিস্তারিত »

  • ইমেলে সাবধান! ক্লিক ছাড়াই ডাউনলোড হবে মেলওয়্যার ভাইরাস

    নিউজ ডেস্ক : যদি আপনি মনে করে থাকেন কোনও অজানা ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের পাঠানো ইমেলে ক্লিক না করলেই ভাইরাস আক্রমণ থেকে সুরক্ষিত থাকবেন, তা হলে সেটা ভুল ভাবছেন। সম্প্রতি এমন এক ট্রোজান ভাইরাসের আগমন হয়েছে যা কোনও ক্লিক ছাড়া এবং আপনার অনুমতি ছাড়াই কম্পিউটারে ঘাঁটি গেড়ে বসবে। যখন বুঝবেন, তত দিনে অনেক দেরি হয়ে যাবে। … বিস্তারিত »

  • ১ জুলাই থেকে আপনার স্মার্টফোনে আর কাজ করবে না স্কাইপ !

    নিউজ ডেস্ক : লন্ডন বা অ্যামেরিকায় থাকা আপনার প্রিয় বন্ধুটির সঙ্গে প্রায়ই নিশ্চয় কথা হয় স্কাইপে। খুব শিগগির সে রাস্তা বন্ধ হতে চলেছে। কারণ ১ জুলাই থেকে আপনার স্মার্টফোনে হয়ত আর কাজ করবে না স্কাইপ। শুনে চমকে উঠলেও খবরটা সত্যি। তবে চিন্তায় পড়ার আগে জেনে নিন কোন কোন স্মার্টফোনে আর স্কাইপ ব্যবহার করা যাবে না … বিস্তারিত »

  • ইন্টারনেট ব্যবহারে বাংলাদেশ সার্কভুক্ত দেশেগুলোর মধ্যে এগিয়ে

    ঢাকা : ইন্টারনেট ব্যবহারের দিক থেকে বাংলাদেশ সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে অনেক এগিয়ে রয়েছে এবং বর্তমানে দেশের ৪২ শতাংশ মানুষ বিভিন্ন কাজে ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে থাকে। বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের তথ্য মতে, এশিয়ার অনেক ক্ষমতাধর দেশকে টপকিয়ে ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে বাংলাদেশের মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়ায় ৬৭.২৪৫ মিলিয়ন, যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৪১.৫২ শতাংশ। … বিস্তারিত »

  • ঢাকায় উবারের অর্ধবর্ষ পূর্তি

    স্বাধীনবাংলা২৪.কম ঢাকা: সম্প্রতি ঢাকায় অর্ধবর্ষ উদযাপন করছে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন অ্যাপসভিত্তিক ট্যাক্সি পরিষেবা উবার। ২০১৬ সালের ২২ নভেম্বর ঢাকায় উবারের যাত্রা শুরু করে। একই বছরের ৫ ডিসেম্বর থেকে ২৪ ঘণ্টার সেবায় রূপান্তরিত হয় উবার। শুরুর পর থেকেই বাড়ছে ঈর্ষণীয় গতিতে। গ্রাহক ও চালক- দু’দিক থেকেই এ বৃদ্ধির হার দ্বিগুণ। বিগত ৬ মাসে এই হার এশিয়ার যেকোনো … বিস্তারিত »

  • ১০ হাজার ফ্রিল্যান্সার তৈরির উদ্যোগ কোডার্সট্রাস্টের

    ঢাকা : এখনকার কর্মব্যস্ত দুনিয়ায় যাতে ঘরে বসে নিজেকে দক্ষ ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়া যায় সেলক্ষে দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে কাজ করছে কোডারসট্রাস্ট। ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ #শিখবেসবাই স্লোগানে ২১ মে রোববার বাংলাদেশে আইসিটি জানালিস্ট ফোরাম (বিআইজেএফ) মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে দেশে ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ সেবাদাতা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান কোডারসট্রাস্ট।সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির গত ৩বছরের সফলতার পাশাপাশি নতুন উদ্যোগের কথা … বিস্তারিত »

  • অচিরেই ৪-জি চালু করা হবে

    ঢাকা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকার বিগত আট বছরে টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তির সুফল দেশের প্রতিটি প্রান্তে পৌঁছে দিতে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে। ওয়ার্ল্ড টেলিকমিউনিকেশন এন্ড ইনফরমেশন সোসাইটি ডে উপলক্ষে মঙ্গলবার এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও আগামীকাল ১৭ মে ওয়ার্ল্ড টেলিকমিউনিকেশন এন্ড ইনফরমেশন সোসাইটি ডে পালন করা হবে।। … বিস্তারিত »