টাকা ভাগাভাগির বিতণ্ডায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা ট্রেন চলাচল বন্ধ

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি,স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ব্রাহ্মণবাড়ীয়া: মালবগিতে মাছের ঝুড়ি বহনের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে রেলের দুই কর্মচারীর বিতণ্ডা ও মারামারির জেরে প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা ধরে বন্ধ ছিল ট্রেন চলাচল।

বুধবার সকালে আখাউড়া জংশন স্টেশনে রেলের নিরাপত্তা বাহিনীর হাবিলদার আবদুল হকের সঙ্গে জালালাবাদ মেইল ট্রেনের পরিচালক (গার্ড) আবদুল্লাহ আল মামুনের বিতণ্ডা এবং এক পর্যায়ে দু’জনের মধ্যে মারামারি ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী জালালাবাদ মেইল ট্রেনটি সকাল পৌনে ৭টা থেকে সোয়া ১০টা পর্যন্ত আখাউড়া জংশন স্টেশনে আটকা পড়ে।

এছাড়া এ ঘটনার খবর বিভিন্ন ট্রেনের পরিচালকদের (গার্ড) কাছে পৌঁছালে আশেপাশের কয়েকটি স্টেশনেও ট্রেন বন্ধ করে রাখা হয় বলে রেলের সূত্র জানিয়েছে।

আখাউড়া জংশন স্টেশন সুপার খলিলুর রহমান জানান, জালালাবাদ ট্রেনের মালবগিতে মাছের ঝুড়ি বহন ও ভাড়া নিয়ে ট্রেনটির পরিচালক (গার্ড) আবদুল্লাহ আল মামুনের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর হাবিলদার আবদুল হক বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে পরিচালক লাথি দিয়ে ট্রেন থেকে মাছের ঝুড়ি ফেলে দেন। এসময় হাবিলদারকেও লাথি মারেন তিনি। পরে হাবিলদার তার হাতে থাকা লাঠি দিয়ে পরিচালককে বেধড়ক পেটান। এতে পরিচালক গুরুতর আহত হন।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ট্রেনের পরিচালক মামুনকে চিকিৎসার জন্য আখাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত হাবিলদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরপর বিকল্প ব্যবস্থায় নাসিরাবাদ ট্রেনে আরেকজন পরিচালক (গার্ড) দিয়ে জালাবাদ ট্রেন চট্টগ্রাম যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আখাউড়া রেলের নিরাপত্তা বাহিনীর চেকপোস্ট পরিদর্শক সালাহ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিষয়টি সমাধানের পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম /এমআর

আরো খবর »