প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন ৬৪ জন

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪ডটকম
নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশে প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় ৬৪ জন নিহত হয়। আর এই সংখ্যা বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহতদের সংখ্যার মধ্যে সর্বোচ্চ। সেন্টার ফর ইনজ্যুরি প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ বাংলাদেশ (সিআইপিআরবি)’র জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে। ২০১৬ সালের তথ্য নিয়ে জরিপটি করেছে তারা।

‘বাংলাদেশ হেলথ ইনজুরি সার্ভে-২০১৬ (বিএইচআইএস)’ শিরোনামে এই জরিপ পরিচালনা করা হয়। প্রকল্পের পরিচালক ফারুক আহমেদ ভুইয়া বলেন, আমরা দুর্ঘটনায় এবং আঘাতে মৃত্যু নিয়ে এই জরিপ চালিয়েছি। তাতে দেখা যায়, প্রতি বছর বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২৩ হাজার ১৬৬ জন নিহত হন। আর তাতে প্রতিদিন গড়ে নিহতের সংখ্যা ৬৪ জন।

২০১৬ সালের তথ্য নিয়ে করা জরিপে দেখা যায়, প্রতি বছর আত্মহত্যা কারেন ২৩ হাজার ৮৬৮ জন, পানিতে ডুবে মারা যায় ১৯ হাজার ২৪৭ জন, উচু স্থান থেকে পড়ে মারা যায় ১৫ হজার ৪৫ জন, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৯ হাজার ২১০ জন এবং সরাসরি হত্যাকান্ডের শিকার হন ৬ হাজার ৪৭৫ জন।

এর আগে ২০০৩ সালে একটা জরিপ করা হয়েছিল। তাতে প্রতিদিন সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু (১৮ বছরের নীচে) শিশু মারা যায় ৯ জন। কিন্তু এবারের জরিপে সেই সংখ্যা ১৪ জন।

প্রতিদিন ১৪ টি শিশু সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হলেও প্রাপ্ত বয়স্ক নিহত হন ৫০ জন। নিহতের হিসেবে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাপ্ত বয়স্ক নিহতের সংখ্যা সর্বোচ্চ।

সড়ক দুর্ঘটনাসহ নানা অপঘাতে প্রতিদিন বাংলাদেশে ৩০০ মানুষ নিহত হন। পঙ্গু হন ৬৬০ জন।

ফারুক আহমেদ ভুইয়া জানান, সড়ক দূর্ঘটনার চিত্রই সবচেয়ে ভয়াবহ, কারণ, এতে নিহতের সংখ্যা বাড়ছে।

এর কারণ জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, এর জন্য যে শুধু চালকদের বেপরোয়া ড্রাইভিংই দায়ী, তা নয়। এর পিছনে ক্রটিপূর্ণ যানবাহন, সড়ক, যাত্রী ও পথচারীদের অসচেতনতা অনেকাংশে দায়ী।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর দুর্ঘটনা গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, সড়ক দুর্ঘনায় প্রতি বছর বাংলাদেশের জিডিপি’র ২ শতাংশ ক্ষতি হয়। বাংলাদেশের জিডিপি ১৭ লাখ কোটি টাকা। তার ২ শতাংশের পরিমান ৩৪ হাজার কোটি টাকা। তবে এই ক্ষতি বাস্তবে আরো বেশি।

তিনি আরো বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় দীর্ঘ মেয়াদে যে আর্থিক ক্ষতি হয় তা আমরা এই হিসেবের মধ্যে ধরি না। একে বিনিয়োগে ভাটা পড়ে। আতঙ্কের কারণে পর্যটনসহ নানা শিল্পে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। বছরে ৩৪ হাজার কোটি টাকার ক্ষতির মধ্যে এর হিসাব নেই। আমরা এই ক্ষতির কথা বলছি আহত বা নিহত ব্যক্তির সম্ভাব্য আয়, চিকিৎসা খরচ ও সম্পদের ক্ষতি হিসাব করে।

অন্যদিকে বাংলাদেশে সাংবাদিকতা পেশায় নিযুক্তরা পেশাগত কারণেই সড়ক দূর্ঘটনার শিকার হন বেশি। কিন্তু তা নিয়ে আলাদা কোনো গবেষণা নেই। তাদের জন্য আলাদাভাবে কোনো চিকিৎসা বা ক্ষতিপুরণের ব্যবস্থাও নেই। (ডয়চে ভেলে)

Loading...

আরো খবর »