গণআদালতে কাদের বিচার হবে সময় বলবে প্রধানমন্ত্রীকে গয়েশ্বর      

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা; জঙ্গিবাদকে উসকে দেওয়ায় ‘গণআদালতে’ বিএনপি নেতাদের বিচার হবে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে দলটির নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, কাদের বিচার হবে তা সময়ই বলে দেবে।

তিনি বলেন, জঙ্গি উস্কানির বিরুদ্ধে গণআদালতে কার বিচার হবে, তা সময় এলেই বোঝা যাবে। জনগণের আদালতের বিচার জনগণই করবে।

আজ বুধবার দুপুরে  জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট’ আয়োজিত ‘ষড়যন্ত্র ও ওয়ান ইলেভেনের সরকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে এক সমাবেশে বিএনপির বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদকে উসকে দেওয়ার অভিযোগ এনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘গণআদালতে’ তাদের বিচার হবে।

তিনি বলেন, ‘তারা জঙ্গি ও সন্ত্রাসী উসকে দিয়েছে। জনগণ তাদের বিচার করবে। গণআদালতে বিচার হবে। বাংলাদেশের মাটিতে জঙ্গিদের স্থান হবে না। বাংলাদেশের মাটিতে সন্ত্রাসীদের স্থান হবে না।’

বিএনপির নেতাদের বিরুদ্ধে নতুন নতুন মামলা দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ করে দলটির এই নীতি নির্ধারক বলেন, ‘এ সরকার এমন কোনো ধারা নেই, যাতে বিএনপি নেতাদের মামলা দেয়নি। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা যেখানে নেই, সেখানে গণতন্ত্রের আশা করা যায় না।’

তিনি বলেন, ‘গণতন্ত্র মানে শুধু ভোটের অধিকার বা সরকার পরিবর্তনকেই বোঝায় না। মানুষের কথা বলার অধিকার, ইচ্ছা প্রকাশ করার অধিকারকেও গণতন্ত্র বলে।’

বিএনপির সমাবেশের অনুমতি না দেওয়ায় সরকারের সামলোচনা করে গয়েশ্বর বলেন, ‘নাশকতার দায় দিয়ে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয় না। কিন্তু তারা তো সমাবেশের নামে জনসাধারণের দুর্ভোগের কারণ হচ্ছে। মঙ্গলবার তাদের সমাবেশকে কেন্দ্র করে রাজধানী জুড়ে মানুষের দুর্ভোগের সীমা ছিল না। সেদিকে তাদের কোনো সমস্যা হয় না। কিন্তু বিএনপির সমাবেশেই সমস্যা।’

এ সময় নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের প্রসঙ্গ টেনে নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য স্বাধীন নির্বাচন কমিশন দরকার বলে মন্তব্য করেন তিনি।

কোন ষড়যন্ত্রই বিএনপিকে গ্রাস করতে পারবে না মন্তব্য করে দলটির এই নেতা বলেন, ‘বিএনপির বিরুদ্ধে যতই ষড়যন্ত্র করা হোক না কেন ধ্বংস করা যাবে না।’

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »